কামরুল বাহার আরিফ

তিন যুগ পরে কালনার খেয়াঘাটে তার সাথে দেখা।
কেমন আছে সে, সহাস্যে জানতে চাইলে
অবাকদৃষ্টে সে তাকিয়ে থাকে।
আমি বিস্ময়ে বলি, চিনতে পেরেছো কি!
চিত্রায় নৌকা ভাসতে শুরু করলো
এবার সে ফিরে গেল ঠিক তিন যুগ আগে
বললো, তার কাছে সেই খাতাটি এখনও আছে
একদিন চুপিসারে ক্লাসের অগোচরে
যে খাতায় লিখেছিলাম ‘বনলতা’!

আমার ভিতরে এখন মধুমতির সুর আর
নবগঙ্গার স্রোত একসাথে বইতে শুরু করলো
ঘাট পেরিয়ে সে নবগঙ্গার দিকে চলে গেল,
আমি মধুমতির দিকে। আর চিত্রা তখন
বনলতার মায়ার চোখে
আমাদের পথের চির বিভক্তি দেখতে থাকলো।